Currently set to Index
Currently set to Follow
Bangla Book Pdf Download (All)

Yehudi jatir itihas Pdf Download

ইহুদি জাতির ইতিহাস বই pdf free download – Yehudi jatir itihas Pdf Download

বইঃ-ইলুমিনাতি
*লেখকঃ-আব্দুল কাইয়্যুম আহমেদ
*ধরণঃ-গুপ্ত গোষ্ঠী ও সংগঠন
*ভাষাঃ-বাংলা
*প্রকাশণীঃ-তাজকিয়া পাবলিকেশন
*প্রথম প্রকাশঃ-জানুয়ারি ২০২০
*প্রচ্ছদঃ-উসামা আদনান
*মোট পৃষ্ঠাঃ-২০২
*মূল্যঃ-২৩৪ ৳

=খালি চোখে যা দেখি আমরা তাই কি বিশ্বাস ও বাস্তবতার সর্বোচ্চ কথা..?উত্তরটা হবে,নাহ্।একবিংশ শতাব্দির চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির অভাবনীয় উন্নতির এই যুগে নিজেকে একজন যোগ্য ও অগ্রসর ব্যক্তি হিসেবে গড়ে তোলাই এখন সবার বড় লক্ষ।সেই প্রাচীনকাল থেকে মানুষ চেষ্টা করে যাচ্ছে।বিজ্ঞানকে নিয়ে যাচ্ছে অনন্য উচ্চতায়।কৌতুহল প্রবণ মানুষদের বিজ্ঞান দিয়ে আসছে বরাবরই বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর।তবুও প্রশ্ন থেকেই যায় আমরা কি আদৌ সবকিছু জানতে পেরেছি?আমাদের চারপাশে খালি চোখে যা দেখছি তাই কি বাস্তবতা?না কি কোনো বিশেষ সম্প্রদায় সভ্যতার সেই আদিকাল থেকেই আমাদের কাছ থেকে লুকিয়ে আসছে গুরুত্বপূর্ণ তথ্যাদি?পৃথিবী কোনদিকে চলছে?পৃথিবীর রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গই বা কি উদ্দেশ্য সামনে নিয়ে এগোচ্ছে..?আমরা যা যা নিত্যদিন করে চলছি তা কি আদৌ আমাদের নিজেদের ইচ্ছায় করা?না কি আমাদের খাওয়া- দাওয়া,হাঁটা-চলা থেকে শুরু করে প্রত্যেকটা গুরুত্বপূর্ণ কাজ নিয়ন্ত্রিত হচ্ছে কোনো বিশেষ সম্প্রদায় দ্বারা?এ পৃথিবীর অধিকাংশ সম্পদই বা ইহুদীদের হাতে কেনো?ইসরায়েলের মতো ক্ষুদ্র একটা রাষ্ট্রের ক্ষমতা এতো বেশি হয় কেমন করে..?সেক্যুলারিজমের নামে আমাদের মাথায় কিসের বিষ ঢুকিয়ে দেওয়া হচ্ছে..?এমন শত শত প্রশ্নের উত্তর জানতে হলে পড়তে হবে ইলুমিনাতি নিয়ে।গুপ্ত সংগঠন নিয়ে।আমাদের চোখের সামনে দৃশ্যমান সংগঠনগুলো ছাড়া আর অন্য কোনো সংগঠনের অস্তিত্ব আছে কি?গুপ্ত সংঘের কাজ কি?কিভাবে প্রতিষ্ঠিত হলো এই সংগঠন?কোন লক্ষে এটি কাজ করছে?পৃথিবীর মানুষেরা কিভাবে আটকা পড়ে আছে টাইম মেশিনের মতো গুপ্ত সংঘের ভয়ানক চক্রান্তের জালে?ইলুমিনাতি নামে কি সত্যিই কিছু আছে?নাকি তা কল্পনা প্রবণ মানুষদের মস্তিষ্কের নিছক কল্পনা?এসকের প্রশ্নের উত্তর জানার জন্য আপনাকে পড়তে হবে গুপ্ত সংগঠন নিয়ে।আর “ইলুমিনাতি” তেমন ধাঁচেরই একটি বই।যদিও আমি মনে করি পাঠকের মনে থাকা সকল প্রশ্নের উত্তর এই বইটিতে পাওয়া যাবে না।যদিও লেখক সুন্দরভাবে বইটি সাজিয়েছেন।এমনভাবে তথ্য-উপাত্ত উপস্থাপন করেছেন যেন মনে হবে কোনো গবেষণাধর্মী বই।বইটিতে অনেক বর্ণনার ক্ষেত্রেই দেখা গিয়েছে লেখক বিভিন্ন তথ্য নিজের মতো করে উপস্থাপন করেছেন।যেমন—তিনি বইটিতে নরেন্দ্র মোদী,ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং বিল গেটস সহ আরো অনেককেই ইলুমিনাতির সদস্য হিসেবে দাবি করেছেন।আমি বলছি না তারা ইলুমিনাতির সদস্য না।আবার এ ও বলছি না তারা ইলুমিনাতির সদস্য!তারা হতে পারে ইলুমিনাতির সদস্য।এখানে আমরা সর্বোচ্চ বলতে পারি,হতে পারে।কিন্তু কখনো জোর দিয়ে দাবি করতে পারি না।বইটিতে বারমুডা ট্রায়াঙ্গাল সম্পর্কে লেখক অবৈজ্ঞানিক এবং বিভ্রান্তিকর কিছু তথ্য দিয়েছেন।পাঠক পড়লেই বুঝতে পারবেন।এছাড়া একই তথ্যের দুবার উল্লেখও পাওয়া গিয়েছে।কিন্তু প্রথম তথ্যের সাথে দ্বিতীয় তথ্যের মিল ছিল না।যেমন—বইটির ৪১ পৃষ্ঠায় উল্লেখ আছে আমেরিকার ত্রিশতম প্রেসিডেন্ট কেলিভিন কোলিজ(১৯২৩-১৯২৯) এবং বত্রিশতম প্রেসিডেন্ট ফ্রাঙ্কলিন রুজভেল্ট (১৯৩৩-১৯৪৫)।আবার একই তথ্য আছে ৪৬ ও ৪৭ পৃষ্ঠায়।যথাক্রমে উভয় পৃষ্ঠায় উল্লেখ আছে আমেরিকার ত্রিশতম প্রেসিডেন্ট ছিলেন জেমস আবরাম গারফিল্ড এবং বত্রিশতম প্রেসিডেন্ট ছিলেন জন কেনেডি (১৯৬১-১৯৬৩)।কিন্তু জন কেনেডি ছিলেন আমেরিকার পঁয়ত্রিশতম প্রেসিডেন্ট এবং গারফিল্ড ছিলেন বিশতম প্রেসিডেন্ট।পাঠক নিশ্চয়ই এই জায়গায় তথ্য ভ্রান্তিতে পড়বেন।বইটির ৬৫ পৃষ্ঠায় উল্লেখ আছে জায়োনিস্ট ইহুদিদের প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হয়েছিল সুইজারল্যান্ডের বাসেলে ১৯৯৭ সালে।বস্তুত সভাটি হয়েছিল ১৮৯৭ সালে।(এটা টাইপরাইটারের ভুলও হতে পারে!)বইয়ের আরো বিভিন্ন জায়গায় বানান ভুল লক্ষ্য করা যায়।তবে এতোকিছুর পরেও কোনো ব্যক্তি যখন প্রথম থেকে শুরু করতে চায় তবে তার জন্য হতে পারে একটি ভালো বই।বইটি মোট ৩২ টি পরিচ্ছদে বিভক্ত ।প্রত্যেক পরিচ্ছদেই লেখক নতুন নতুন তথ্য উপস্থাপন করেছেন।তাও আবার রেফারেন্স সহকারে।যাইহোক,যারা গুপ্ত সংগঠন সম্পর্কে জানতে আগ্রহী তারা বইটি পড়তে পারেন।বইটির প্রচ্ছদ ভালো ছিল।ধন্যবাদ।হ্যাপি রিডিং🙂

Download link:

ইলুমিনাতি বই পিডিএফ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button